হাওড়া স্টেশনে যে ভুলটি করলেই গুণতে হবে মোটা টাকার জরিমানা

হাওড়া স্টেশনে যে ভুলটি করলেই গুণতে হবে মোটা টাকার জরিমানা – স্টেশনে কিংবা ট্রেনের বগির ভিতরে বিজ্ঞাপন দিয়েও কোনো কাজের কাজ হচ্ছে না, জোরদার চলছে মাইকে সচেতনতামূলক প্রচার, কিন্তু না, কোনো কিছুতেই কোনও কাজ হচ্ছে না। কিছু কিছু রেলযাত্রী যেখানে

সেখানে থুতু ফেলার অভ্যাস এখনও বদলাতে পারেননি, ও আবার এই থুতুর সাথে রয়েছে পান এবং গুটখার পিক ও। শুধুই তাই নয়, একটু নিরিবিলি পেলেই কেউ কেউ তো আবার প্ল্যাটফর্মে দাঁড়িয়েই শৌচকর্ম করে নিচ্ছেন। প্ল্যাটফর্ম, রেল লাইন কিংবা ট্রেনের কামরা— সব

জায়গাতেই এখনও সেই একই ছবি ধরা পড়ছে। যাত্রীদের এক ফোঁটাও হুঁশ হয়নি, তাই এবার যাত্রীদের হুঁশ ফেরাতে নড়েচড়ে বসল রেল পুলিশ। আরপিএফ এদিন হাওড়া স্টেশনে পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা বিষয়ক একটি অভিযান চালিয়েছে। যারা সেদিন যেখানে সেখানে থুতু অথবা

পানের পিক ফেলেছেন তাদের জরিমানাও করা হয়েছে। আর যারা জরিমানা দিতে পারেননি তাদের সোজা জেলে পাঠানো হয়েছে। যাঁরা স্টেশন বা রেল লাইনে থুতু ফেলেছেন, তাঁদের একশো টাকা জরিমানা করা হয়েছে। আর গুটখা অথবা পানের পিক ফেলার ফলে অনেকেই আবার

পাঁচশো টাকা করে জরিমানা ও দিলেন সেদিন। যারা জরিমানা দিতে পারেননি তাদের নিজেদের হেফাজতে নিয়েছে আরপিএফ। এই সব যাত্রীর এহেন আচরণে অন্যান্য যাত্রীরা যথেষ্ট বিরক্ত হন। তাঁরাও চাইছেন যাতে স্টেশনটা একটু পরিষ্কার থাকে। আরপিএফ-এর এই উদ্যোগকে তাইঅনেক যাত্রীই স্বাগতম জানিয়েছেন। তবে তাঁদের দাবি করেছেন যে, এই অভিযান যদি নিয়মিত না চলে তাহলে এইসব উদাসীন যাত্রীদের হুঁশ ফেরানো কিন্তু যথেষ্ট কষ্টসাধ্য একটা ব্যাপার হবে।