হজের খরচ ৩০ শতাংশ কমলো

চলতি বছর হজ প্যাকেজের মূল্য কমিয়েছে সৌদি আরবের হজ ও উমরাহ মন্ত্রণালয়। করোনা পরিস্থিতি নিয়ে যে নীতি নির্ধারিত ছিল সেটিও সহনশীল করা হয়েছে।সৌদি আরবের হজ ও উমরাহ মন্ত্রণালয়ের সহকারী সচিব ডক্টর আমর বিন রেদা আল মাদ্দাহর বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে গালফ নিউজ।খবরে বলা হয়, করোনা ভাইরাসের কারণে গত তিন বছর ধরে হজ সংক্রান্ত নানা কড়াকড়ি ছিল। এ বছর তা তুলে

নেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া হজ প্যাকেজের মূল্যও ৩০ শতাংশ কমানো হয়েছে।এ সংক্রান্ত ঘোষণায় সহকারী সচিব ডক্টর আমর বিন রেদা আল মাদ্দাহ জানান, সৌদির অভ্যন্তরীণ যে হজ প্যাকেজগুলো রয়েছে, সেগুলো কোম্পানির সেবার মানের ওপর ভিত্তি করে কয়েকটি ক্যাটাগরিতে ভাগ করা হয়েছে, যা নির্ধারিত হবে হজ ক্যাম্পে সেবার মানের ওপর। ইকোনোমিক হজ প্যাকেজের ৯০ শতাংশ হয়েছে।তিন ভাগে হজ

প্যাকেজের অর্থ পরিশোধেরও নিয়ম করা হয়েছে। সৌদি আরবের স্থানীয় মুসল্লিরা চাইলে এটি গ্রহণ করতে পারবেন। তবে, হজ পালনে আগ্রহীদের আগে নিবন্ধন করতে হবে। এর আগে পুরো অর্থ একসঙ্গে পরিশোধের বাধ্যবাধকতা ছিল।নিবন্ধনের ৭২ ঘণ্টার মধ্যে প্যাকেজের ২০ শতাংশ অর্থ পরিশোধ করে নিজের জায়গা নিশ্চিত করতে হবে হজ পালনে আগ্রহীদের। দ্বিতীয় কিস্তি, অর্থাৎ ৪০ শতাংশ অর্থ আগামী ২৯

জানুয়ারির মধ্যে পরিশোধ করতে হবে। আগামী ২৩ এপ্রিলের মধ্যে পরিশোধ করতে হবে বাকি ৪০ শতাংশ। প্রতিটি কিস্তি পরিশোধে আগ্রহীদের একটি করে রসিদ দেওয়া হবে বলেও জানিয়েছে সৌদি আরবের হজ ও উমরাহ মন্ত্রণালয়।এ ক্ষেত্রে আরও একটি নিয়ম জারি করা হয়েছে, আগ্রহী ব্যক্তিরা নির্ধারিত সময়ের মধ্যে অর্থ পরিশোধ না করলে হজ প্যাকেজটি ‘নিশ্চিত’ করা হবে নাউল্লেখ্য,

প্রতি বছর সারা বিশ্বের ২৫ লাখ মানুষ হজ পালন করেন। ২০২০ সালে করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে এর ব্যাঘাত ঘটে। মাত্র কয়েক হাজার মানুষ সে বছর হজের সুযোগ পান। ২০২১ সালে সৌদির অভ্যন্তরে বসবাসকারী ৬০ হাজার হজ প্রত্যাশী সুযোগ পান। ২০২২ সালে সারা বিশ্ব থেকে মাত্র ১০ লাখ মানুষ হজের সুযোগ পেয়েছিলেন।