স্বামীর অনুপস্থিতিতে যুবকের সাথে অনৈতিক সম্পর্ক

ব্রা-হ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলায় ৫ স-ন্তানের জননী এক নারীর সাথে একই এলাকার এক যুবকের বি-রুদ্ধে বিয়ে ব-হির্ভূত অ-নৈতিক সম্প-র্কের অভিযোগ উঠেছে।ঐ নারীর ঘরে গ-ভীর রাতে আপত্তিকর অব-স্থায় এক যুবক দেখতে পায় এলাকাবাসী। এ নিয়ে এলাকায় ব্যাপক চা-ঞ্চল্য সৃ-ষ্টি হয়েছে।উপজেলার সি-ঙ্গারবিল ইউনিয়নের নোয়াবাদী গ্রামের মোঃ জলিল মোল্লার ছেলে মোঃ সুমন মোল্লা (৩২) এর সাথে একই

এলাকার বাতারি মোল্লার স্ত্রী পারভীন বেগম (৩৬) এর অসামাজিক কা-র্যকলাপের অভিযোগ পাওয়া গেছে। সরেজমিনে খোঁ-জ নিয়ে জানা যায়, পারভীন বেগমের স্বামী বাতারি মোল্লা মানুষের টাকা পয়সা নিয়ে দী-র্ঘদিন ধরেই এলাকা ছাড়া। পা-রভীন স-ন্তান সন্ততি নিয়ে বাড়ীতেই একা থাকেন। এই সুযোগে প্রতি-বেশী যুবক সুমন মোল্লার সাথে অ-নৈতিক সম্পর্ক গড়ে উঠে। কিছুদিন আগে রাত ১ টার সময় পারভীন বেগম ও সুমন মোল্লা কে অসামাজিক কা-র্যকলা-পে লিপ্ত অবস্থায় হাতেনাতে ধরে ফেলে একই এলাকার মোঃ এমরান মিয়া, মোকলেছ মিয়া সহ প্রতিবেশিরা।

সমাজে এধরণের অ-নৈতিক ক-র্মকা-ন্ডের বিরুদ্ধে প্রশাসনের কাছে বিচার চেয়েছেন এলাকার সর্ব-স্তরের জনসাধারণ। এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে প্রত্যা-ক্ষদ-র্শী এমরান মিয়া বলেন, ঐ দিন আমি আমার স্ত্রী-র সাথে পারি-বারিক ক-লহ হওয়ায় ঘরে না গিয়ে পারভীন বে-গমের বাড়ীর পাশে ব-সেছিলাম তখন রাত পৌ-নে একটা বাজে এসময় সুমন মো-ল্লা পারভীনের ঘরে ঢুকে পারভীন ঘরের দ-রজা আ-গেই খুলে একটু ফাঁক করে রেখেছিলেন।

এর ১৫ মিনিট পরে মোকলেস মিয়া কে ডেকে এনে হাতেনাতে ধরে ফেলি এর পর অন্যন্যা প্র-ত্যাক্ষদ-র্শীরা এগিয়ে আসেন। প্রতিবেদক সরে-জমিনে পারভীন বেগমের বা-ড়ীতে গিয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সুমন মো-ল্লা রাতে আমার ঘরে এ-সেছিল। কি জন্য এ-সেছিল জানতে চা-ইলে তিনি বলেন টাকা দিতে এসেছিলো।

অ-ভিযু-ক্ত সুমন মো-ল্লার বাড়ীতে স-রেজমিনে এ বিষয়ে বি-স্তারিত জানতে গেলে জানা যায় এলাকায় সাংবাদিক আসার খবরে তিনি আগেই বাড়ী থেকে সটকে পড়েন। সিংগারবিল ইউনিয়নের আওয়ামীলীগের সা-ধারণ সম্পাদক মোঃ বাবুল চৌ-ধুরী বলেন, এই ঘ-টনা-টি আসলে নিন্দ-নীয় আমি মনে করি প্র-চলিত সমাজ ব্য-বস্থার মধ্যেই এর বিচার হওয়া উচিত এবং ম-হিলাটি গরীব অসহায় তাই বি-ষয়টি একটি সু-ষ্ঠু সমাধান হওয়া উচিত।