যেসব নারীর জমজ সন্তান হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে!

যমজ শিশুদের নিয়ে আমাদের মধ্যে সব সময় এক ধরনের কৌতূহল কাজ করে। মজার ব্যাপার হচ্ছে সম্প্রতি যমজ শিশুর জন্মও বাড়ছে। সম্প্রতি প্রকাশিত এক পরিসংখ্যান বলছে, যমজ সন্তান জন্মের হার আগের চেয়ে অনেকটাই বেড়ে গেছে। ১৯৮০ থেকে ২০০৯ পর্যন্ত এই বৃদ্ধির হার ৭৬ শতাংশ।

১৯৮০ সালের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, সদ্যভূমিষ্ঠ প্রতি ৫৩ শিশুর মধ্যে একজন যমজ হত। ২০০৯ সালের হিসেবে তা বেড়ে দাঁড়ায় প্রতি ৩০ জনে একজন। সম্প্রতি যমজ সন্তানের মায়েদের উপর গবেষণা চালিয়েছে জার্নাল অব রিপ্রোডাক্টিভ মেডিসিন।

তাদের প্রকাশিত প্রতিবেদনে যমজ শিশু বেশি জন্ম নেয়ার কারণ, তাদের আচরণ এবং কাদের যমজ শিশু বেশি জন্ম হয় তা নিয়ে তথ্য দেয়া হযেছে। গবেষণায় বলা হয়েছে, যেসব নারীদের উচ্চতা বেশি তাদের যমজ সন্তানের জন্ম দেয়ার সম্ভাবনা বেশি।

গবেষণায় আরও বলা হয়েছে, মায়ের উচ্চতার সঙ্গে যমজ সন্তান জন্মদানের সম্পর্ক রয়েছে। কারণ আমাদের শরীরের বেড়ে ওঠার জন্য কিছু বিশেষ বিষয় কাজ করে। যাকে বলা হয় গ্রোথ-ফ্যাক্টর। যা হচ্ছে ইনসুলিন নামের এক বিশেষ ধরণের প্রোটিন। এই ইনসুলিন বোন সেল বৃদ্ধিকে তরান্বিত করে। একই সঙ্গে মেয়েদের লম্বা হবার প্রবণতা ও যমজ সন্তান জন্মদানের বিষয়টিকে নিয়ন্ত্রণ করে।

আরও পড়ুন=ক্রীড়াজগত থেকে এবার অভিনয় জগতে পা রাখছেন টেনিস তারকা সানিয়া মির্জা। ওয়েব সিরিজ দিয়ে বিনোদন দুনিয়ায় পা রাখছেন তিনি। বিষয়টি তিনি নিজেই জানিয়েছেন। বিশেষ কারণেই অভিনয় জগতে পা রাখছেন সানিয়া। টিউবারকিউলোসিস অর্থাৎ যক্ষ্মারোগের বিরুদ্ধে মানুষকে সচেতন করার তাগিদেই ওয়েব সিরিজের সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন তিনি। খবর- সংবাদ প্রতিদিন।জানা গেছে, পাঁচটি পর্বের সিরিজটির নাম ‘এমটিভি নিষেধ অ্যালোন টুগেদার’।

এক নবদম্পতির কাহিনী সিরিজে ফুটিয়ে তোলা হবে। আচমকা লকডাউনের ফলে যাদের জীবনে নানা সমস্যার সৃষ্টি হয়।দম্পতির চরিত্রে অভিনয় করবেন সায়েদ রাজা আহমেদ ও প্রিয়াংকা চৌহান। সানিয়াকে গল্পে কীভাবে দেখা যাবে সেই সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু এখনো জানা যায়নি। সব ঠিক থাকলে চলতি নভেম্বরের শেষেই সোশ্যাল মিডিয়ায় দেখা যাবে সিরিজটি।