যেমন ছেলেকে বিয়ে করতে চান অভিনেত্রী তিশা

নিজের প্রথম বিয়ের কষ্ট ভুলে গিয়ে আবারও বিয়ে করার কথা এখনি ভাবছেন না ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী তাসনুভা তিশা। বর্তমানে দুই সন্তান নিয়ে একা জীবন যাপন করছেন তিনি।একাকি জীবিনের বিষয়ে তিনি বলেন, বিয়ে নিয়ে এখনই কিছু ভাবছি না। যদিও একা থাকতে থাকতে আমি ক্লান্ত হয়ে গেছি। মাঝেমধ্যে এটাও ভাবি

একাকী জীবন ভালোই লাগে।তবে মাঝে মধ্যে ফেসবুকে চারপাশের মানুষের বিয়ের পোস্ট দেখলে মনে হয় আমারও বিয়ে করা উচিত। কয়েক বছর আগে এই অভিনেত্রী ভালোবেসে বিয়ে করেন।শুরুতে বিয়ের খবর গোপন রাখেন তিনি। সেই বিয়ের খবর প্রকাশ করেন পরের বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে। হঠাৎ করেই চার বছর পর তাঁদের বিবাহবিচ্ছেদের খবর জানা যায়।

নিজেদের মধ্যে বোঝাপড়ার সমস্যা দিনের পর দিন চলতে থাকায় তিনি বাধ্য হয়ে তালাকের মতো সিদ্ধান্ত নেন। তখন থেকেই এই অভিনয়শিল্পী দুই সন্তান নিয়ে পরিবারের সঙ্গে থাকেন।তবে নিজের প্রথম বিয়ের বিষয়ে তিনি বলেন মানুষের জীবনে তো বিভিন্ন ঘটনা ঘটে। তেমন একটি ঘটনা তাঁর জীবনেও ঘটেছে। সে সময় বেশ কষ্টও পেয়েছিলেন তিনি। দুই সন্তান সেই কষ্ট অনেকটাই ভুলিয়ে দিয়েছে।

বিচ্ছেদের পর কাজ কমিয়ে দিলেও ছেলেমেয়ের ভবিষ্যতের দিকে তাকিয়ে কিছুদিন বিরতি দিয়ে সেবারই আবারও কাজে নিয়মিত হয়েছেন তাসনুভা। নিজেকে গুছিয়ে এনেছেন। নির্মাতাদের কাছে তিনি এখন আস্থার নাম।তবে এই অভিনেত্রী জীবনসঙ্গী হিসেবে যেমন মানুষ চান, তেমন মানুষ তাঁর চোখে এখনো পড়েনি। মনের মতো মানুষ না পাওয়া পর্যন্ত বিয়ের কথা মুখে আনতে চান না তিনি। তাসনুভা তিশা মনে করেন,

বিয়েটা বোঝাপড়ার বিষয়। নিজেদের মধ্যে সবার আগে ভালো বোঝাপড়া জরুরি। ভবিষ্যতে বিয়ের ক্ষেত্রে তিনি আর ভুল সিদ্ধান্ত নিতে চান না। তিনি বলেন, ‘একবার ভুল করেছি, দ্বিতীয়বার একই ভুল করতে চাই না।এ জন্য বিয়ে করতে ভয় পাচ্ছি। প্রয়োজনে আমি আরও পাঁচ বছর অপেক্ষা করতে চাই। কিন্তু আমার মনের মতো একটা পাত্র চাই, যাঁকে আমি বুঝব আর সেও আমাকে বুঝতে পারবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘বিয়ে করার ক্ষেত্রে আমার চাহিদা খুব বেশি না। টাকাওয়ালা না, খুব সাধারণ একটি ছেলেকে বিয়ে করব, যাঁর সঙ্গে আমার মানসিকতা মিলবে।