বি’য়ের প্রলো’ভন দে’খিয়ে ডে’কে নি’য়ে এক স’ন্তানের জন’নীকে গণধ”ণ

নরসিংদীতে বি’য়ের প্র’লোভন দেখেয়ে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে এক না’রীকে সংঘবদ্ধ ধষর্ণের অ’ভিযোগে দা’য়ের করা মা’মলায় দুই যুব’ককে গ্রে’প্তার করেছে পুলিশ। বুধবার রাতে অ’ভিযুক্ত দুই আ’সামিকে শিবপুর উপজে’লার বিভিন্ন স্থানে অ’ভিযান চা’লিয়ে গ্রে’প্তার করা হয়। এর আগে একই দিন রাতে শিবপুর মডেল থানায় সং’ঘবদ্ধ ধ”ণের মা’মলাটি দা’য়ের করেন নি’র্যাতিতা ওই না’রী।

গ্রে’প্তাররা হলেন- নরসিংদীর রায়পুরা উপজে’লার সাহেরচর এলাকার মোম’রেজ খানের ছেলে আক্তার হোসেন (৩০)এবং একই এলাকার জামির আলীর ছেলে রহিম খান (৩২)। এ ঘটনায় অ’ভিযুক্ত আরেক আ’সামি মোমেন ওরফে মোনায়েম খান (২৬) প’লাতক রয়েছেন।মা’মলার এজাহারে জানা গেছে, নরসিংদীর পলা’শ উপজে’লার চলনা গ্রামের স্বা’মী পরি’ত্যাক্ত ও এক স’ন্তানের জন’নী ওই না’রী জে’লার সদর উপজে’লার একটি মো’মবাতি ফ্যাক্টরিতে কাজ করতেন। একই স্থানে কাজ করতে গিয়ে সালমা আক্তার নামে এক না’রীর সাথে তার পরিচয় হয়।

তার সূত্র ধরে সালমার ভাই অ’ভিযুক্ত আক্তার হোসেনের সাথে ওই না’রীর মো’বাইলে কথাবর্তা চলে, প্রে’মের সম্প’র্ক গড়ে উঠে। এরই জের ধরে গত ১৭ নভেম্বর বিয়ের কথা বলে নি’র্যাতিত না’রীকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে আসেন অ’ভিযুক্ত আক্তার হোসেন। পরবর্তীতে আক্তার হোসেন তার দুই সহযোগীসহ সিএনজি যো’গে ওই

না’রীকে নিয়ে বিভিন্ন স্থা’নে ঘোরা’ঘুরির পর শিবপুর উপজে’লার কুন্দারপাড়ার একটি নি’র্জন স্থা’নে ধা’ন খেতে নিয়ে যান। পরে সেখানেই তারা জো’রপূর্বক ওই না’রীকে ধ”ণ করেন এবং হ’ত্যার হু’মকি দিয়ে পা’লিয়ে যান।

এ ঘটনার পর পরদিন বুধবার রাতে আক্তার হোসেনসহ তিনজনকে আ’সামি করে মা’মলা দা’য়ের করেন নি’র্যাতিতা ওই না’রী। রা’তেই অ’ভিযুক্ত দুই আ’সামিকে গ্রে’প্তার করেছে পু’লিশ। শিবপুর মডেল থানা ওসি (ত’দন্ত) আবুল কালাম ঘটনার সত্য’তা নিশ্চিত করে বলেন, বৃহস্পতিবার দুপুরে নি’র্যাতিতা ওই না’রীকে নরসিংদী সদর হাসপাতালে ডাক্তারি পরী’ক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। অপর অ’ভিযুক্তকেও গ্রে’প্তারে অ’ভিযান চলছে। সূত্রঃ সমকাল