বাবা দিনমজুর, ছেলে ২ কোটির স্কলারশিপ পেয়ে পাড়ি দিচ্ছে আমেরিকা

ইচ্ছে শক্তির মধ্য দিয়েই অন্ধকার থেকে আলোয় পাড়ি দেওয়া যায়। এমনটাই প্রমাণ করলেন দিনমজুর ঘরের এক ছেলে। দলিত পরিবারের এই ছেলের বাবা দিনমজুর হওয়ার কারণে সত্যিই তাদের নুন আনতে পান্তা ফুরানোর মতো অবস্থা। তবে তা হলো তো কি হয়েছে, এই ছেলেই আজ ২ কোটি টাকার স্কলারশিপ পেয়ে পড়াশোনার জন্য পাড়ি দিচ্ছে আমেরিকা।

আমেরিকার পেলসেনভেনিয়া হল পৃথিবীর সেরা শিক্ষার জায়গা। সেখানেই বিশ্ববিদ্যালয়ের আমন্ত্রণে পড়াশোনা করতে যাচ্ছে এই দলিত পরিবারের ছেলে। এমন আশ্চর্য কান্ড করে সকলকে চমকে দিয়েছেন বিহারের প্রেম কুমার। বিহারের ফুলওয়ারশরিফের ছোট্ট গ্রাম গোনপুরার বাসিন্দা প্রেম কুমার। তার বয়স মাত্র ১৭ বছর। দ্বাদশ শ্রেণীর এই ছাত্র পেয়েছেন ২.৫ কোটি টাকার বিখ্যাত ‘ডায়ার ফেলোশিপ’ স্কলারশিপ।

গোটা বিশ্ব থেকে এই স্কলারশিপের জন্য বেছে নেওয়া হয়েছে মাত্র ৬ জনকে। তাদের মধ্যেই বিহারের প্রেম কুমার অন্যতম। এই স্কলারশিপ পাওয়ার পরিপ্রেক্ষিতেই প্রেম কুমার পড়াশোনা করতে যাবেন আমেরিকার পেনসিলভেনিয়ার মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং ও ইন্টারন্যাশনাল রিলেশনস নিয়ে পড়বে পেনসিলভেনিয়ার লাফায়েটি কলেজে।

বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের বক্তব্য অনুযায়ী, গোটা বিশ্ব থেকে যে সকল ছাত্র-ছাত্রীদের বেছে নেওয়া হয়েছে তাদের মধ্যে অন্যতম হলেন প্রেম কুমার। এই ছাত্রের যোগ্যতাকেই স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে। কিছুদিন আগেই এই কলেজের তরফ থেকে প্রেম কুমারকে একটি চিঠি পাঠানো হয়েছে এবং সেই চিঠিতে ওই কলেজের অধ্যক্ষ ম্যাথু এ হাইড লিখেছেন, “অভিনন্দন আপনাকে, পিছিয়ে পড়া সম্প্রদায়ের সেবার বিষয়ে আপনার প্রতিশ্রুতি ও সংকল্পকে স্বীকৃতি জানাতে পেরে আমরাও অনুপ্রাণিত।”

এর আগে যখন প্রেম কুমার ১৪ বছর বয়সী ছাত্র ছিলেন তখন তাকে মেধাবী ছাত্র হিসাবে চিহ্নিত করেছিল দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম শিক্ষা সংক্রান্ত প্রতিষ্ঠান ডেক্সটেরিটি গ্লোবাল। এই প্রতিষ্ঠানটি বিভিন্নভাবে প্রেম কুমারকে পড়াশোনার জন্য সাহায্য করে থাকে। সেই সূত্রেই প্রেম কুমার এই বড় সাফল্য পেয়েছেন বলে দাবি করেছেন।