পুকুরের পানিতে বিদ্যুতায়িত হয়ে বাবা-ছেলের করুন মৃত্যু

বগুড়ার নন্দীগ্রামে পুকুরের পানিতে বিদ্যুতায়িত হয়ে বাবা-ছেলের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনার পর থেকে মৎস্যচাষি শাহীন আলম পলাতক রয়েছেন।শুক্রবার (২৮ আগস্ট) সকাল ৯টার দিকে নন্দীগ্রাম উপজেলার বুড়ইল ইউনিয়নের তুলাশন গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। ওই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

নিহতরা হলেন- তুলাশন গ্রামের মৃত জহির উদ্দিনের ছেলে মোফাজ্জল হোসেন (৫৫) ও তার ছেলে শরিফুল ইসলাম (২৬)।জানা গেছে, তুলাশন গ্রামে সোয়া দুই একর জায়গায় বিরোধপূর্ণ একটি পুকুরে মাছ চাষ করেন একই গ্রামের শাহিন আলম। পুকুরের মাছ চুরি ঠেকাতে তিনি রাতে পুকুরের পানি কাঁটাতারের সাহায্যে বিদ্যুতায়িত করে রাখেন। শুক্রবার সকালে একই গ্রামের দুই শিশু ওমর ফারুক (১০)

ও সিনহা খাতুন (৮) পুকুরে রাখা নৌকায় উঠতে গেলে তারা ধাক্কা খেয়ে পুকুর পাড়ে পড়ে যায়।দুই শিশুর পড়ে যাওয়া দেখে মোফাজ্জল হোসেন কারণ অনুসন্ধানের জন্য পুকুরের পানিতে নেমে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন। এ সময় তার চিৎকারে ছেলে শরিফুল বাবাকে উদ্ধার করতে পুকুরে নামলে দুইজনই বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা যান।

পরে গ্রামবাসী তাদের মরদেহ উদ্ধার করেন। ঘটনার পরপরই পুকুরের মালিক শাহিন আলম বাড়ি থেকে পালিয়ে যান।নন্দীগ্রাম থানার ওসি মোহাম্মদ শওকত কবির বলেন, বাবা-ছেলের মরদেহ উদ্ধার করে বগুড়া জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার পর থেকে শাহিন আলম পলাতক রয়েছেন। এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।