নারী দ্বারা পরিচালিত যে গ্রামে পুরুষের প্রবেশ ও বসবাস নি’ষিদ্ধ!

আ’লোচনার কে’ন্দ্রে চলে এলো শী’র্ষে কেনিয়ার একটি গ্রাম উমোজা। এই গ্রামে পুরুষদের বসবাস করা তো দূ’রের কথা, প্রবেশও নিষি’দ্ধ। কেন এমন অ’দ্ভুত নি’য়ম চালু করা হল এই গ্রামে, আসু’ন জে’নে নেওয়া যাক-১৯৯০ সালে গ্রামটি গড়ে ওঠে ১৫ জন ধ’র্ষিতা নারীর উদ্যো’গে। এই ১৫ জন নারী এই গ্রামে একস’ঙ্গে বসবাস শুরু করেন।

পরবর্তীকালে আশেপাশের এলাকা থেকেও সামাজিক ও পারিবারিক নি’র্যাতনের শি’কার হওয়া নারীরা এরপর এখানে এসে বসবাস করা শুরু করেন। ২০১৫ সালে এই গ্রামে বসবাসকারী নারীদের সংখ্যা দাঁ’ড়ায় ৪৭ জনে।এই গ্রামের প্র’ত্যেক নারী স্ব’নির্ভর। মূলত ক্ষু’দ্র ও কু’টির শিল্পের স’ঙ্গে যু’ক্ত এই গ্রামের সকল সদ’স্য।

এই গ্রামের নারীদের তৈরি গয়না বর্তমানে সারা বিশ্বেই বেশ জ’নপ্রিয়তা পে’য়েছে। দেশ-বিদেশ থেকে হাজার হাজার প’র্যটকরা ছুটে আসেন এই উমোজা গ্রামে এই প্র’ত্যয়ী, স্ব’নির্ভর নারীদের দে’খার জন্য। প’র্যটকদের থেকে পাওয়া প্র’বেশমূল্য বাবদ পাওয়া সামান্য অ’র্থকেও গ্রাম উ’ন্নয়নের কাজেই ঢে’লে দেন এই নারীরা।

প্রতি বছর নি’য়ম করে এই গ্রাম পরিচালনার দায়িত্ব ভার প’রিবর্তন করা হয়। প্রতি বছর ২ জন করে প্রতিনিধি গ্রাম পরিচালনা দায়িত্ব পান। বর্তমানে এই গ্রামে শি’শুসহ মোট ৪০০ জনের বসবাস। ছোটদের পড়াশোনার দায়িত্ব থেকে সং’সার চা’লানোর যাবতীয় ভার বয়ে চ’লেছেন গ্রামের নারীরাই। বিশ্ব নারীদিবসে ব্যা’তিক্রমী হিসাবে উমো’জা গ্রামের বা’সিন্দারা পথ দে’খাচ্ছেন বিশ্বের লক্ষ লক্ষ নি’পীড়িত নারীদের।