দেশে আটকে পড়া সৌদি প্রবাসীদের সুখবর দিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী !

যাদের ইকামা, ভিসা আছে, দেশে এসেছেন ছুটিতে, তাদের সবাই সৌদি যেতে পারবেন, কোনো জটিলতা হবে না বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আব্দুল মোমেন।এর জন্য সৌদি আরব কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করা হচ্ছে বলেও জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।আজ শুক্রবার ফরেন সার্ভিস একাডেমি সুগন্ধা-এর নব নির্মিত কমপ্লেক্স উদ্বোধন অনুষ্ঠানে যোগ দেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আব্দুল মোমেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অনলাইনে যুক্ত হয়ে এর উদ্বোধন করেন।অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফিংয়ে সৌদির টিকিট ইস্যুতে কথা বলেন মোমেন।সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, যাদের ইকামা আছে, সৌদিতে চাকরি আছে, কিন্তু দেশে এসেছিলেন, তারা সবাই ফেরত যেতে পারবেন।

এদিকে,দ্বিতীয় দিনের মতো টিকিট বিক্রি শুরু করেছে সৌদি অ্যারাবিয়ান এয়ারলাইন্স। বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে রাজধানীর কারওয়ানবাজারের হোটেল সোনারগাঁওয়ের অফিস থেকে টিকিট বিক্রি শুরু করে সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় বিমান সংস্থা সৌদি অ্যারাবিয়ান এয়ারলাইন্স।শুক্রবার (২৫ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টার দিকে হোটেল সোনারগাঁওয়ের কার্যালয়ে টিকিট বিক্রি শুরু হয়।সৌদি এয়ারলাইন্সের কর্মকর্তারা জানান, শুক্রবার ৩৫০ জন টোকেনধারীকে ডাকা হয়েছে। সাপ্তাহিক ছুটি ও জুমার দিন হওয়ায় একটু কম ডাকা হয়েছে। তবুও সময় থাকলে পরবর্তী সিরিয়াল অনুযায়ী টিকিট দেওয়া হবে।

সৌদি এয়ারলাইন্সের জি এম জাহিদ হোসেন বলেন, রিটার্ন টিকিট কেটে যারা দেশে এসেছিলেন তারা পর্যায়ক্রমে টিকিট পাবেন। তাড়াহুড়ো, ধাক্কাধাক্কি না করে সবাইকে অপেক্ষা করতে হবে।সৌদি এয়ারলাইন্সের কর্মকর্তারা জানান, কোভিড-১৯ প্রাদুর্ভাব শুরুর আগে যারা রিটার্ন টিকিট কেটে দেশে ফিরেছেন এখন শুধুমাত্র তাদের টিকিট দেওয়া হবে। নতুন করে কোনো টিকিট ইস্যু করা হবে না।

প্লেনের টিকিটের জন্য গত ছয় দিন ধরে হোটেল সোনারগাঁওয়ে এয়ারলাইন্সের কার্যালয়ের সামনে অবস্থান করছেন সৌদি গমনেচ্ছুরা। বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) সৌদি সরকার ইকামার মেয়াদ ২৪ দিন বাড়ানোয় সংকট কেটেছে অনেকটা। এছাড়া সৌদি এয়ারলাইন্স ও বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট বাড়ানোয় স্বস্তি প্রকাশ করেছেন প্রবাসীরা।