ঢাকা টু মাস্কাট ফ্লাইটের টিকেট যেভাবে পাবেন

দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর অবশেষে বাংলাদেশ থেকে ওমান ফ্লাইট পরিচালনার অনুমোদন পেলেন ওমানের ট্রাভেল পয়েন্ট এলএলসি নামে একটি প্রতিষ্ঠান। মহামারী করোনা প্রাদুর্ভাবে বাংলাদেশ থেকে ওমানের ফ্লাইট বন্ধের দীর্ঘদিন পর বাংলাদেশ থেকে পুনরায় ওমানে ফ্লাইট পরিচালনা করার অনুমতি পেলো এই প্রতিষ্ঠানটি। ইতিমধ্যেই গত (২৬-আগস্ট) তারা বাংলাদেশ এবং ওমান সরকার থেকে সকল ছাড়পত্র পেয়েছে ফ্লাইট পরিচালনা করার।

বিষয়টি ওমান থেকে প্রবাস টাইমকে নিশ্চিত করেছেন ট্রাভেল পয়েন্টের সেলস এন্ড এয়ারপোর্ট অপারেশন অফিসার মোঃ মুস্তাফিজুর রহমান। বৃহস্পতিবার তিনি প্রবাস টাইমের লাইভে এসে এই বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছেন। মুস্তাফিজুর রহমান বলেন, বাংলাদেশ থেকে ১২ ক্যাটাগরির ভিসাধারী প্রবাসী ব্যতীত বাকি যেকোনো প্রবাসীরা চাইলেই পুনরায় ওমান আসতে পারবেন। সেক্ষেত্রে তাদের টিকিট সহ বাংলাদেশ এবং ওমান সরকারের সকল ছাড়পত্র ট্রাভেল পয়েন্ট থেকে ব্যবস্থা করা হবে। তবে অবশ্যই যাত্রীকে করোনা নেগেটিভ সনদ থাকতে হবে।

রেসিডেন্স কার্ডে আরবিতে ক্যাটাগরি লেখা থাকার কারণে যাদের বুঝতে সমস্যা হচ্ছে, তারা নিম্নে উল্লেখিত নিয়মে নিজে নিজেই রেসিডেন্স কার্ড যাচাই করতে পারবেন। সেইসাথে আপনার পতাকায় (রেসিডেন্স কার্ড) ব্লক কিনা এবং আপনার আরবি ওমান সরকারের কাছে আপনার কত রিয়াল নির্ধারণ করেছে, এইসব বিস্তারিত তথ্য আপনি ঘরে বসেই জানতে পারবেন। সে জন্য আপনাকে যা করতে হবে:

প্রথমে আপনার মোবাইলের প্লে ষ্টোরে থেকে ‘Ministry of Manpower‘ এই অ্যাপটি ডাউনলোড করবেন, এরপর Main page এ ক্লিক করবেন> এরপর individuals services এ ক্লিক করবেন> এরপর Labor Card অপশনে ক্লিক করবেন> এখন উপরের ঘরে Civil id লেখা ঘরে আপনার পতাকা (রেসিডেন্স কার্ড) নাম্বার এবং নিচে Passport No লেখা এই ঘরে আপনার পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে Search লেখার উপরে ক্লিক করলেই আপনার বিস্তারিত তথ্য

চলে আসবে। তবে খেয়াল রাখবেন, যাদের একাধিক পাসপোর্ট রয়েছে, তারা ওমানের রেসিডেন্স কার্ড নবায়নের সময় যে পাসপোর্ট নাম্বার দিয়েছিলেন, উক্ত পাসপোর্ট নাম্বার দিয়েই আপনাকে চেক করতে হবে।অ্যাপটি ডাউনলোড করতে এই লিংকে ক্লিক করুনঃ https://play.google.com/store/apps/details?id=com.momp.app

এবার আপনি চেক করে যদি দেখেন আপনার পতাকা (রেসিডেন্স কার্ড) উপরে উল্লেখিত ১২ টি ক্যাটাগরির বাহিরে, তাহলে আপনি বর্তমানে ওমানে যেতে পারবেন। ২য় ধাপে আপনাকে ট্রাভেল পয়েন্টের আবেদন ফর্ম পূরণ করে এরপর +968 99 36 49 19 হোয়াটসঅ্যাপ নাম্বারে পাঠিয়ে দিন। আবেদনে শেষ তারিখ আগামীকাল শনিবার (২৯-আগস্ট) বাংলাদেশ সময় দুপুর ২টা পর্যন্ত। আপনার আবেদন পাওয়ার পর ট্রাভেল পয়েন্ট থেকে একটা ফিরতি মেসেজ দেওয়া হবে। উক্ত মেসেজে আপনি সিলেক্ট হয়েছেন কিনা তা জানানো হবে। যদি আপনি সিলেক্ট হন, তাহলে আপনাকে শনিবার দুপুর ২টার মধ্যেই ১৯০ রিয়াল ওমানের ট্রাভেল পয়েন্টের একাউন্টে পরিশোধ করতে হবে (বাংলাদেশে পেমেন্ট করার কোনো অপশন নাই)।

টিকিট কনফার্ম হওয়ার পর আপনাকে বাংলাদেশ সরকার অনুমোদিত কোভিড টেস্ট সেন্টার থেকে করোনা পরীক্ষা করাতে হবে। সেক্ষেত্রে যেসব বিষয় লক্ষ রাখবেন:১। যাত্রার ৭২ ঘণ্টার পূর্বে কোন নমুনা সংগ্রহ করা হবে না এবং যাত্রার ২৪ ঘন্টা পূর্বে রিপোর্ট ডেলিভারি গ্রহণের ব্যবস্থা করতে হবে;২। নমুনা প্রদানের সময় পাসপোর্টসহ যাত্রীদের বিমান টিকেট ও পাসপোর্ট উপস্থাপন এবং নির্ধারিত ফি পরিশোধ করতে হবে;৩।

কোভিড-১৯ পরীক্ষার নিমিত্তে নির্দিষ্টকৃত পরীক্ষাগার যে জেলায় অবস্থিত সে জেলার সিভিল সার্জন অফিসে স্থাপিত পৃথক বুথে তাদের নমুনা প্রদান করবেন;৪। নমুনা প্রদানের পর থেকে যাত্রার সময় পর্যন্ত সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি আবশ্যিকভাবে আইসোলেশনে থাকবেন;৫। বিদেশ যাত্রীদের কোভিড-১৯ পরীক্ষা সনদ প্রাপ্তির জন্য ল্যাবে গিয়ে নমুনা প্রদানের ক্ষেত্রে ৩৫০০ টাকা এবং বাড়ি থেকে নমুনা সংগ্রহে ৪৫০০ টাকা ফি প্রদান করতে হবে।