ঢাকায় এমিরেটস এয়ারলাইন্সের সপ্তাহে ৯টি ফ্লাইট

আগামী ৪ অক্টোবর থেকে ঢাকা-দুবাই-ঢাকা রুটে সংযুক্ত আরব আমিরাতের এমিরেটস এয়ারলাইন্স অতিরিক্ত আরও দুইটি ফ্লাইট চলাচল করবে।এর ফলে ঢাকায় বিমানসংস্থাটির সাপ্তাহিক ফ্লাইট সংখ্যা দাঁড়াবে ৯টিতে।সোম ও শুক্রবার অতিরিক্ত এই ফ্লাইটগুলো পরিচালিত হবে।বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানায় এমিরেটস।

এতে বলা হয়, ফ্লাইট পরিচালনায় ব্যবহৃত হবে সুপরিসর বোয়িং ৭৭৭-৩০০ ইআর।ইকে ৫৮৩ ফ্লাইটটি সকাল ১০টায় ঢাকা ছেড়ে দুপুর ১টায় দুবাই পৌঁছাবে।অন্যদিকে ইকে ৫৮২ একই দিন রাত ২টায় দুবাই ছেড়ে সকাল ৮টায় ঢাকায় অবতরণ করবে। emirates.com ওয়েবসাইট কিংবা ট্রাভেল এজেন্টদের মাধ্যমে টিকিট বুক করা যাবে।

আরো পড়ুন…বেশিরভাগ ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের নামের পাশে ব্রাদার্স/ট্রেডার্স/মেসার্স শব্দগুলো দেখা যায়। যেমন- তানভীর ব্রাদার্স, সুইট ট্রেডার্স, মেসার্স জাহিদ স্টোর। কখনো কি আপনার মনে প্রশ্ন জেগেছে, এই শব্দগুলো নামের পাশে যুক্ত করা হয় কেন? কিংবা এই শব্দগুলোর মানে কি? চলুন, সেসব প্রশ্নের উত্তর জানা যাক-মসিয়ার (Monsieur) হলো এক ধরনের ফরাসি উপাধি; যার অর্থ জনাব/মহোদয়। মসিয়ার এর বহুবচন হলো মেইসিয়ারস, সংক্ষেপে বলা হয় মেসার্স (এর বাংলা অর্থ সর্বজনাব)। আমরা মেসার্স উচ্চারণ করলেও অভিধানে একে বলা হয় ‘মেসাজ’। জেনে রাখা ভালো, ‘মেসার্স’ শব্দটি ইংরেজি ‘মিস্টার’ শব্দের বহুবচন।

মেসার্স শব্দটি সাধারণত বিভিন্ন বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের নামের আগে ব্যবহৃত হতে দেখা যায়। কিন্তু এই শব্দটি বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই ভুলভাবে ব্যবহার করা হয় আমাদের দেশে। অজ্ঞতা এবং অসচেতনতার কারণেই এটা হয়ে থাকে। যেসব বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের নাম কোনো মানুষের নামে এবং তার সঙ্গে অন্য আরো মানুষের সংশ্লিষ্টতা প্রকাশ করে (যেমন ‘নুরুল অ্যাণ্ড ব্রাদার্স’ বা ‘কেয়া অ্যাণ্ড কোম্পানি’), সেসব বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের নামের ক্ষেত্রে ‘মেসার্স’ শব্দটি ব্যবহার করা যেতে পারে।