ট্রাম্পের বড় ছেলে ট্রাম্প জুনিয়র করোনায় আক্রান্ত

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বড় ছেলে ডোনাল্ড ট্রাম্প জুনিয়র। শুক্রবার প্রেসিডেন্টপুত্রের ব্যক্তিগত মুখপাত্র বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। খবর সিএনএনের।

ট্রাম্পপুত্রের মুখপাত্র বলেন, ডোনাল্ড এসপ্তাহের শুরুতেই করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছেন এবং ফলাফল আসার পর থেকে নিজ কেবিনে কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন।

ট্রাম্প জুনিয়র করোনায় আক্রান্ত হলেও তার শরীরে কোনও ধরনের উপসর্গ নেই। তিনি কোভিড-১৯ সম্পর্কিত সবধরনের মেডিক্যাল পরামর্শ মেনে চলছেন বলেও জানিয়েছেন তার মুখপাত্র।

গত মাসের শুরুর ‍দিকে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প নিজে, ফার্স্টলেডি মেলানিয়া এবং এ দম্পতির ছেলে ব্যারন ট্রাম্প (১২) করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন। তারা দ্রুতই সুস্থ হয়ে উঠেন।

বাবার নির্বাচনী প্রচারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে চলেছেন ডনাল্ড জুনিয়র। তার বান্ধবী ফক্স নিউজের সাবেক অনুষ্ঠান সঞ্চালক কিমবেরলি গুইলফোইলে গত জুলাইয়ে এ রোগে আক্রান্ত হয়েছিলেন এবং সুস্থ হয়ে উঠেন। ওই সময় ডোনাল্ড জুনিয়র সংক্রমিত হননি।

আরও পড়ুন=আল্লাহ যখন দেন তখন ছপ্পড় ফুঁড়ে দেন, এমন কথা নিশ্চয়ই আপনি অনেক শুনেছেন। কিন্তু এবার সেই কথাই সত্যি হল ইন্দোনেশিয়ার এক যুবক জোসুয়া হুটাগালানগুর ওপর। রাতারাতি দরিদ্র থেকে কোটিপতি হয়ে গিয়েছে এই যুবক।৩৩ বছর বয়সের জোসুয়া যখন নিজের বাড়িতে কাজ করছিল সে সময় আকাশ থেকে তাঁর বাড়িতে পরে এমন এক বস্তু, যা তাঁকে রীতিমতো বড়লোক করে দিয়েছে তাকে। দরিদ্র থেকে সোজা ১০ কোটির মালিক বনে যান সে।

জোসুয়ার বাড়িতে আকাশ থেকে পড়া অতি বিরল একটি উল্কাপিন্ড প্রায় ৪ বিলিয়ন বছর পুরোনো। এটির বাজারে দাম ধরা হয়েছিল ১০ কোটি টাকা। উল্কাপিণ্ডটি মারাত্মক তীব্র গতিতে ছাদে পড়ে ছাদ ফুটে হয়ে নীচে পড়ে মেঝের মধ্যে প্রায় ১৫ সেমি ঢুকে যায়। ঘটনায় প্রথমে মারাত্মক আতঙ্কিত হয়ে পড়েন জোসুয়া। জোসুয়া জানিয়েছে, প্রথম যখন এটি পড়ে, তখন এটি মারাত্মক গরম ছিল কিন্তু পরে এটি ঠাণ্ডা হয়ে যায়।