চালু হচ্ছে ভারত-বাংলাদেশ ফ্লাইট, চুক্তির প্রক্রিয়া শুরু

এয়ার বাবল চুক্তির মাধ্যমে ভারতের সঙ্গে বন্ধ হওয়া বিমান যোগাযোগ আবার শুরুর প্রক্রিয়া শুরু করেছে বাংলাদেশ সিভিল এভিয়েশন।এই চুক্তি হলে নির্দিষ্ট শর্তে সমানসংখ্যক যাত্রী দুই দেশে আকাশপথে যাতায়াত করতে পারবেন।তবে যাত্রীরা ভারত বা বাংলাদেশ হয়ে তৃতীয় কোনো দেশে যেতে পারবেন না।

কুটনৈতিকদের পাশাপাশি প্রাথমিকভাবে ব্যবসায়ী ও রোগী এই দুই ক্যাটাগরির যাত্রী ভ্রমণের সুযোগ পাবেন।সিভিল এভিয়েশনের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মফিদুর রহমান জানান, এয়ার বাবল ব্যবস্থা চালুর জন্য কাজ চলছে।এ ব্যবস্থায় যে যাত্রী বাংলাদেশে আসবেন তিনি শুধু বাংলাদেশেই থাকবেন।আর যিনি ভারতে যাবেন তিনি শুধু ভারতেই থাকবেন।

আরো পড়ুন…রপ্তানি খাতের দেশি প্রতিষ্ঠানগুলো এখন রপ্তানি প্রত্যাবাসন কোটা (ইআরকিউ) থেকে বিদেশি কর্মীদের বেতন দিতে পারবে। আগে শুধু বিদেশি প্রতিষ্ঠানের স্থানীয় শাখা ও রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ এলাকার প্রতিষ্ঠানগুলো এ সুযোগ পেত। এর ফলে দেশি প্রতিষ্ঠানগুলোও বিদেশি কর্মীদের বৈদেশিক মুদ্রার হিসাবে (এফসি) বেতন দিতে পারবে। বিদেশিরা এই বেতন থেকে ৭৫ শতাংশ পর্যন্ত নিজ দেশে নিয়ে যেতে পারে।

বাংলাদেশ ব্যাংক মঙ্গলবার এ নিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করে নতুন করে এই সুযোগ দিয়েছে।কেন্দ্রীয় ব্যাংক কর্মকর্তারা বলছেন, দেশের পোশাক খাতে কর্মরত ভারত ও শ্রীলঙ্কার নাগরিকদের অনেকেই হাতে হাতে বেতন নিচ্ছেন। এসব আয় তারা নিজ দেশেও নিয়ে যাচ্ছেন। তবে এর কোন হিসাব থাকছে না। ব্যাংক হিসাবে বেতন গেলে ও নিজ দেশে নিয়ে গেলে এর প্রকৃত হিসাব থাকবে। এতে যে বিভ্রান্তি রয়েছে তাও দূর হবে।