ক্ষু’ব্ধ কোবরা বললেন, ‘১৫০ জ’নকে ক্র’সফা’য়ারের সময় আ’ইন কোথায় ছিল’

গু’লিতে মৃ’ত্যুর আগে সাবেক মেজর সিনহা বেশ কয়েক ঘণ্টা ছিলেন অভিনেতা ইলিয়াস কোবরার সঙ্গে। এ নিয়ে নানা তর্ক-বিতর্ক হচ্ছে। এ বি’ষয়ে সময় সংবাদকে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন তিনি।প্রতিক্রিয়ায় ইলিয়াস কোবরা বলেন, ‘এখানে ১০০ থেকে ১৫০ জনকে যে ক্র’সফা’য়ার দেয়া হয়েছে, তখন এ দেশের আইন কোথায় ছিল? আইন তো সবার জন্যে সমান হওয়া উচিত। একজন অবসরপ্রাপ্ত মেজর মা’রা গেছে এটা কখনো কাঙ্ক্ষিত না।

আরও তো কত মায়ের বুক খালি হয়েছে, তখন কোথায় ছিলো এ আইন। আমি একজন শিল্পী হিসেবে মনে করি প্রত্যেক ক্র’সফা’য়ারের ত’দন্ত হওয়া উচিত।’তিনি বলেন, ‘ক্র’সফা’য়ার কখনোই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত না। এটা আইন বি’রোধী কাজ। সমাজ বি’রোধী কাজ। এটার জন্যে আলাদা কোনো পদ্ধতি বের করতে হবে। ক্র’সফা’য়ার দিয়ে শান্তি আনা যাবে না বরং আরো অশান্তি বেড়ে যাবে।’

অভিনেতা ইলিয়াস কোবরা বলেন, ‘আমার এলাকায় ইয়াবার কোনো ব্যবসায়ী নেই। যারা আছে তারা লেবার হিসেবে কাজ করে। আমার এলাকায় একটা ভালো বাড়িও নেই। ইয়াবার কোনো গডফাদার তো দূরের কথা।’এসময় এসআই লিয়াকতের সঙ্গে তার কথা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘লিয়াকতের সঙ্গে আমার পরিচয় আছে। তার সঙ্গে সাবেক মেজরের মৃ’ত্যুর দিনও কথা হয়েছে। আমাদের এখানে একটা বস্তা পাওয়া গিয়েছিল,

তখন আমি টেলিফোনে জানানোর পর লিয়াকত সাহেব আসেন। তিনি এসে বস্তাটা নিয়ে যান, আমাদের সদস্যকে নিয়ে গেছেন। তখন আমি তাকে বললাম, যে দেখে জানিয়েছে তাকেই যদি নিয়ে যান, তাহলে খবর দেবে কে? এসময় তিনি বলেছিলেন, তাদের স্যার কিছু জি’জ্ঞাসাবাদ করবেন। তখন তার সঙ্গে বার বার কথা হচ্ছিল, তিনি মানতে চাচ্ছিলেন না।

পরে ছেলেটাকে নিয়ে চালানে দিয়ে দেয়। ৩-৪দিন পর জা’মিন পায়। এভাবেই তারা করে।’তিনি আরো বলেন, ‘সিনহার সঙ্গে যেখানে এই ঘটনা ঘটেছে সেখানে আমার কোনো সম্পর্ক নেই, এখানেও নেই, ঢাকাতেও কিছু নেই।’সূত্রঃ সময় টিভি