কুয়েতে নতুন আমিরের নাম ঘোষণা-

শেখ নাওয়াফ আলআহমদ আলজাবের আলসাবাহকে কুয়েতের নতুন আমির হিসেবে নাম ঘোষণা করা হয়েছে।কিছুক্ষণ আগে কুয়েতের মন্ত্রিপরিষদের পক্ষ থেকে কুয়েতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী এই নাম ঘোষণা করেন।এতোদিন শেখ নাওয়াফ কুয়েতের যুবরাজ হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন।

কুয়েতে বর্তমানে তিনদিনের সরকারি ছুটি ও চল্লিশ দিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা করা হয়েছে।আজ মঙ্গলবার বিকেলে কুয়েতের দিওয়ানে আমিরি শেখ সাবাহ আল আহমদের মৃত্যুসংবাদ ঘোষণা করে। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯১ বছর। ২০০৬ সাল থেকে তিনি কুয়েতের আমির হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন।

এদিকে,আজ মঙ্গলবার বিকেলে ইন্তেকাল করেছেন কুূয়েতের আমির শেখ সাবাহ আলজাবের। তাঁর মৃত্যুতে উপসাগরীয় অঞ্চল ও মধ্যপ্রাচ্যসহ পুরো বিশ্বের আরব, মুসলিম এবং অন্যান্য দেশে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। গালফবাংলার পাঠকদের জন্য আমরা এই নেতার সংক্ষিপ্ত জীবন ও কর্ম তুলে ধরছি-২০০৬ সালের ১৫ জানুয়ারি মারা গেলেন কুয়েতের তৃতীয় আমির জাবের আল-আহমাদ আল-সাবাহ। তাঁর ‍মৃত্যুর পর রাজপরিবারের নিয়ম অনুযায়ী ১৬ জানুয়ারি দাওলাত আল-কুয়েতের চতুর্থ আমির হলেন ক্রাউন প্রিন্স সাদ আল-সালিম আল-সাবাহ। একই সময় নতুন ক্রাউন প্রিন্স ঘোষণা করা হলো পূর্ববর্তী প্রধানমন্ত্রী ও পররাষ্ট্র মন্ত্রী সাবাহ আল-আহমাদ আল-জাবেরকে।

রাজপরিবারে কাউকে ক্রাউন প্রিন্স ঘোষণা করা মানে, পরবর্তী আমির তিনিই হবেন। সে হিসেবে নতুন আমির সাদ আল-সালিমের পর আমির হবেন সাবাহ আল-আহমাদ। তবে সেই সৌভাগ্যের জন্য খুব বেশি অপেক্ষা করতে হলো না সাবাহ আল-আহমাদকে।নতুন আমির সাদ আল-সালিমের বয়স তখন ৭৯। দীর্ঘদিন ধরে তিনি নানা প্রকার অসুস্থতায় ভুগছিলেন।

হুইলচেয়ার ছাড়া চলতে পারতেন না এবং শ্বাসকষ্টের দরুণ খুব বেশি কথাও বলতে পারতেন না। তার শারীরিক অপারগতার কথা চিন্তা করে কুয়েতের ন্যাশনাল এসেম্বলির সদস্যগণ তাঁকে আমিরের পদ থেকে অব্যাহতি নেয়ার সুপারিশ করেন। এসেম্বলির পরামর্শে আমির সাদ আল-সালিম ক্ষমতাগ্রহণের এক সপ্তাহ পর ২৩ জানুয়ারি আমিরের পদ থেকে অব্যাহতি নেন। ২৪ জানুয়ারি কুয়েতের নতুন আমির ঘোষণা করা হয় ৮০ বছর বয়স্ক ক্রাউন প্রিন্স সাবাহ আল-আহমাদকে।