কাতারে কয়েক মাসে সবচেয়ে কম শনাক্ত আজ

কাতারে গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ২০৮ জন। এঁদের মধ্যে দশ জন সম্প্রতি কাতারে ফিরে আসা লোকদের মধ্যে। আর এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো এক লাখ ১৮ হাজার ১৯৬ জন।বর্তমানে কাতারে করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তির সংখ্যা ২ হাজার ৯৮৩ জন।

অন্যদিকে সুস্থ হয়ে উঠেছেন এর ২২০ জন। ফলে মোট সুস্থ ব্যক্তির সংখ্যা এক লাখ ১৫ হাজার ১৭ জনে পৌঁছালো।এদিকে ২৪ ঘন্টায় নতুন করে একজনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে কাতারে এখন পর্যন্ত করোনায় মৃত্যুবরণকারী ব্যক্তির সংখ্যা ১৯৬।কাতার কর্তৃপক্ষ এখন পর্যন্ত ৬ লাখ ১৪ হাজার ৩৫৪ জনের স্বাস্থ্য নমুনা পরীক্ষা করেছে। তবে গত ২৪ ঘন্টায় পরীক্ষা করা হয়েছে ৫ হাজার ৯৬ জনের নমুনা।

কাতারে করোনাজনিত কারণে বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন ৪২৭ জন। গত ২৪ ঘন্টায় হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৪৬ জন।অসুস্থদের মধ্যে গত ২৪ ঘন্টায় আইসিইউতে ভর্তি হয়েছেন ৪ জন। বর্তমানে কাতারে আইসিইউতে মোট চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৬৮ জন।

আরো পড়ুন…করোনার কারণে গত পাঁচ মাসের বেশি সময় ধরে বন্ধ রয়েছে রেস্তোরাঁয় বসে খাওয়া-দাওয়ার ব্যবস্থা।তবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে শুরু করায় ধাপে ধাপে তুলে নেওয়া হচ্ছে এই নিষেধাজ্ঞা। এর ফলে এখন আবার রেস্তোরাঁয় বসে পছন্দের খাবার খাওয়ার সুযোপ পাবেন কাতারবাসী।এমনকি যেসব রেস্তোরাঁ বিভিন্ন মলে অবস্থিত, সেগুলোও আগামী সপ্তাহ থেকে ক্রেতাদের সামনে খাবার পরিবেশনের সুযোগ পাবে।

কাতারে যেসব রেস্টুরেন্ট অনলাইনে আবেদন করে ‘কাতার ক্লিন সার্টিফিকেট’ পেয়েছে, সেগুলো স্বাভাবিকভাবে শতভাগ ক্রেতাদের জন্য খাওয়া-দাওয়ার ব্যবস্থা করতে পারবে। অর্থাৎ এসব রেস্টুরেন্ট আগের মতো পুরোদমে চালু করা যাবে। তবে স্বাস্থ্যবিধি ও প্রয়োজনীয় সর্তকর্তামূলক ব্যবস্থা মেনে চলতে হবে।কিন্তু যেসব রেস্টুরেন্ট কাতার ক্লিন সার্টিফিকেট নেই, সেগুলোও ক্রেতাদের জন্য ভেতরে বসে খাওয়া-দাওয়ার ব্যবস্থা করতে পারবে। তবে মোট ধারণক্ষমতার শতকরা ৩০ ভাগ জায়গা ব্যবহার করা যাবে।আগামী ১ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার থেকে এই সুবিধা পাবেন রেস্টুরেন্ট মালিকরা।কাতার বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও কাতার পরিবেশ ও পৌরসভা মন্ত্রণালয় এক বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানিয়েছৈ।