এবার ভারতের সঙ্গে ফ্লাইট চলাচল বাতিল করলো সৌদি

করোনার সংক্রমণ বাড়তে থাকায় সৌদি আরব এবার ভারতের সঙ্গে ফ্লাইট বন্ধ করলো।দেশটির জেনারেল অথরিটি অব সিভিল অ্যাভিয়েশন জানিয়েছে, ভারত, ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনার সঙ্গে ফ্লাইট বন্ধ করা হয়েছে। খবর দ্য হিন্দু।বৃহস্পতিবার ভারতে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৫৭ লাখ ছাড়িয়ে গেছে।

ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুসারে, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন ৮৬ হাজারের বেশি মানুষ।ভারতে করোনায় মৃতের সংখ্যা ৯১ হাজার ছাড়িয়ে গেছে।ভারতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর গত ২৩ মার্চ থেকে বন্ধ করে দেওয়া হয় আন্তর্জাতিক বিমান পরিষেবা।এখনও সেই পরিষেবা শুরু হয়নি।বন্দে ভারত মিশনের আওতায় ও কয়েকটি দেশের সঙ্গে এয়ার বাবল চুক্তির মাধ্যমে পরিষেবা চালানো হচ্ছিল।

তার মধ্যে অন্যতম দেশ সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাত।করোনা বিধি লঙ্ঘন করায় এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেস চলাচল বন্ধ করেছিল সংযুক্ত আরব আমিরাত।শুক্রবার ভারত থেকে হংকংয়ে যাওয়ার পর কিছু যাত্রীর কোভিড রিপোর্ট পজিটিভ আসে।তারপরেই রবিবার থেকে আগামী ৩ অক্টোবর পর্যন্ত ভারতের সঙ্গে বিমান পরিষেবা বন্ধ রাখার কথা জানিয়েছে হংকং। তবে শুধু এয়ার ইন্ডিয়া নয়, ভারতের সঙ্গে সব রকমের ফ্লাইট বন্ধ করলো সৌদি আরব।

আরো পড়ুন…চীনের অর্থনৈতিক প্রভাব থামানোর জন্য সাম্প্রতিক সময়ে নিজেদের সামরিক অস্ত্র অধিকহারে কিনতে বাংলাদেশকে প্রলুব্ধ করার চেষ্টা করছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।কারণ দক্ষিণ এশিয়ায় বাংলাদেশকে একটি ‘উদীয়মান’ শক্তি মনে করে দেশটি।আর এ কারণে বাংলাদেশের মতো উদীয়মান মিত্রের ওপর চীনের অর্থনৈতিক প্রভাব থামাতে চাইছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।জাপানের সংবাদমাধ্যম নিক্কি এশিয়ান রিভিউয়ে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এসব কথা বলা হয়েছে।

এ মাসের শুরুর দিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, যিনি প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ও দেখাশোনা করেন, তাকে ফোন করেছিলেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষামন্ত্রী মার্ক এসপার।বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে এভাবে মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রীর ফোন করার ঘটনা বিরল।ওই ফোনে তিনি দক্ষিণ এশিয়ার এ দেশটিকে ২০৩০ সালের মধ্যে সামরিক বাহিনীকে আধুনিকায়নে সহায়তার প্রস্তাব দেন।