ইসলামকে ভালোবেসে মুসলিম হলেন তামিল অভিনেত্রী

ইসলামের জীবন দর্শন দ্বারা প্রভাবিত হয়ে ইসলাম ধর্ম গ্রহন করেছেন দক্ষিণ ভারতের জনপ্রিয় অভিনেত্রী ও তারকা মনিকা। মুসলমান হবার পর তিনি নিজের জন্য নতুন নাম পছন্দ করেছেন এমজি রহিমা। তেলেগু, মালায়লাম এবং কান্নাড়া ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি। এ পর্যন্ত তার অভিনীত সিনেমার সংখ্যা ৭০ ছাড়িয়েছে।

এক প্রেস কনফারেন্সের মাধ্যমে তিনি নিজের ইসলাম ধর্ম গ্রহনের কারণ ব্যাখ্যা করেন। প্রেস ব্রিফিং এ মনিকা (নতুন নাম রহিমা) বলেন, আমি টাকা কিংবাবপ্রেমের টানে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করিনি। ইসলামের নিয়ম কানুন ও রীতিনীতি পছন্দ করেই আমি এ ধর্ম গ্রহন করেছি। মনিকা চলচ্চিত্র জগতে পা রাখেন শিশুশিল্পী হিসেবে।

ছোট বেলায় অভিনয়ে তিনি তামিল নাডুর জাতীয় পুরষ্কার অর্জন করেন। ইসলাম ধর্ম গ্রহনের পর সিনেমায় অভিনয় করবেন না বলে পরিষ্কার জানিয়ে দেন। চেন্নাইয়েরমাধুরা শহরের উদ্যোক্তা মালিকের সঙ্গে তার বিয়ে হয় ২০১৫ সালের ১১ই জানুয়ারি। মনিকার পিতার ঘনিষ্ঠ বন্ধুর ছেলে মালিক। জন্মের পর রেখা মারুথিরাজ নামে বেড়ে উঠেন মনিকা।

পরে তামিল এবং তেলেগু সিনেমায় অভিনয় করতে এসে তার নাম হয় মনিকা। মালায়লাম সিনেমায় অভিনয় করতে এসে আবারও তার নাম পরিবর্তন করে রাখা হয় পারভানা। তার অভিনীত সিনেমা গুলির মধ্যে ইনিদু ইনিদু কাদাল ইনিদু, ইসাই আরাসান ২৩ত্ম পুলিকেসি, ভারনাম এন্ড জান্নাল অরাম জনপ্রিয়।

আরও পড়ুন=নয়াদিল্লি, ২১ নভেম্বর- ক্রিকেট মাঠে সবচেয়ে ঠাণ্ডা মাথার খেলোয়াড় হিসেবে পরিচিত ভারতের ইতিহাসের সফলতম অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। খেলোয়াড়ি জীবনে খুব সময়ই মাঠে বা মাঠের বাইরে রাগতে দেখা গেছে ধোনিকে। যে কারণে তার নামই হয়ে গেছিল ‘ক্যাপ্টেন কুল।’ তবে ধোনিকেও রাগাতে পারেন একজন। কে পারেন ধোনিকে রাগাতে?- এমন প্রশ্নের জবাবটা শুধুমাত্র ধোনি নিজে কিংবা তার কাছের কেউই দিতে পারবেন। মাঠের ভেতরে প্রায় সব পরিস্থিতিই নিজের মতো সামাল দেন ধোনি। তবে মাঠের বাইরে তাকে রাগাতে পারেন শুধুমাত্র স্ত্রী সাক্ষী ধোনি। নিজের জন্মদিনে এ কথা জানিয়েছেন সাক্ষী।

বৃহস্পতিবার ছিল ধোনির স্ত্রী সাক্ষীর ৩২তম জন্মদিন। যা উদযাপন করতে তার সঙ্গে এক লাইভ আড্ডার ব্যবস্থা করে ধোনির আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজি চেন্নাই সুপার কিংস। যেখানে প্রশ্ন রাখা হয়, ‘ধোনিকে রাগাতে পারেন কে?’ উত্তরে নিজের নামই বলেছেন সাক্ষী।