আজ বাড়বে তাপমাত্রা,দেখে নিন এক নজরে আবহাওয়া পূর্ভাবাস

অর্ধমাস হতে চলল দেশে টানা বৃষ্টি হচ্ছে। ঢাকাতেও হচ্ছে। রাজধানীতে শুক্রবারও (২৮ আগস্ট) ১২ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। বৃষ্টিময় আবহাওয়ায় ঢাকাসহ সারাদেশেরই তাপমাত্রা কম রয়েছে। তবে আবহাওয়া অফিস বলছে, ঢাকায় আজকে তাপমাত্রা সামান্য বাড়তে পারে।শনিবার (২৯ আগস্ট) সকালে আবহাওয়া অধিদফতর এ তথ্য জানিয়েছে।

সকাল ৭টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত সময়ে ঢাকা ও পার্শ্ববর্তী এলাকার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, আকাশ আংশিক মেঘলা থাকতে পারে। বৃষ্টি/বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। দক্ষিণ/দক্ষিণ-পূর্ব দিক থেকে ঘণ্টায় ৮-১২ কিলোমিটার বেগে বাতাস বইতে পারে। দিনের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে।ঢাকায় সকাল ৬টায় তাপমাত্রা ছিল ২৭ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। গতকালের সর্ব্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৩ দশমিক ৯০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আজকের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আরো পড়ুন…বগুড়ার ধুনট উপজেলার উল্লাপাড়া গ্রামের কৃষক হবিবর রহমান। কৃষি কাজের পাশাপাশি ৫টি গরুও লালন-পালন করেন। কিন্তু গো-খাদ্যের যে দাম, এতে যারা গরু লালন-পালন করছেন তারা হাঁপিয়ে উঠেছেন। হবিবর রহমান জাগো নিউজকে বলেন, ‘যে ঘাসের আঁটি বন্যার আগে ১০ টাকা ছিল, সেটি এখন ২৫ থেকে ৩০ টাকা হয়েছে। যে খড় ছিল ৫/৬ টাকা কেজি, সেটি এখন ২০ টাকা। তাছাড়া বন্যার পানি নেমে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সবাই দ্রুত চাষ দিয়ে ফসল ফলানোর কাজ করছে। ফাঁকা কোনো গো-চারণ ভূমিও নেই। এমতাবস্থায় গরু/ছাগল/ ভেড়া নিয়ে অনেকেই বিপাকে পড়েছেন।’

বিভিন্ন জেলায় খবর নিয়ে জানা গেছে, এবার বন্যা শুরুর পর থেকেই গোটা উত্তরাঞ্চলসহ দেশের ৩৮টি বন্যা উপদ্রুত এলাকায় গো-খাদ্যের সংকট দেখা দেয়। এখন এ সংকট আরও তীব্র হয়েছে। কারণ বন্যায় ঘাসের জমি, আউশ, বোনা আমন সব ডুবে গেছে। বোরো ধানের খড় এমনিতেই কম হয়। এই খড় গো-খাদ্যের চাহিদা মেটাতে পারে না। ফলে গৃহস্থরা সারা বছর আমনের খড় দিয়েই চাহিদা মেটান। এবার বোরো ধান কাটার সময় বৃষ্টিতে অনেকের খড় পচে গেছে। তাছাড়া বন্যায় অনেকের খড় ডুবে নষ্ট হয়েছে।