আগে ছিলাম ছোট জেলে, এখন আছি বড় জেলে: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

করোনাকালে ঘরবন্দি জীবনের স্মৃতিচারণ করে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আওয়ামী লীগই আমার পরিবার। আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের সঙ্গে দেখা করতে পারলে, কথা বলতে পারলে আমার মন ভাল হয়ে যায়।বৃহস্পতিবার (১৯ নভেম্বর) দুপুরে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সম্পাদক মণ্ডলীর সভায় তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী হাসতে হাসতে বলেন, ২০০৭-২০০৮ এ ছিলাম ছোট জেলে, এখন আছি বড় জেলে। করোনা আমাদের এই পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছে। যখনই সুযোগ পাব তখনই দলের নেতাকর্মীদের সঙ্গে দেখা করব, কথা বলব।তিনি আরও বলেন, আগামীতে করোনার আরও একটি ধাক্কা আসতে পারে। এ ব্যাপারে দলীয় নেতাকর্মী ও দেশবাসী সবাইকে সচেতন থাকতে হবে। আর সবার জন্য মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় ছিল বলেই করোনায় বিশ্ব যখন বিপর্যস্ত, তখন আমরা আমাদের অর্থনৈতিক গতিশীলতা ধরে রাখতে পেরেছি।এ সময় তিনি সংগঠনকে শক্তিশালী করার নির্দেশ দেন।

আরও পড়ুনঃভারতের টেনিস তারকা সানিয়া মির্জার অভিষেক হতে চলেছে ওয়েব সিরিজে৷ টিবি বা যক্ষ্মারোগের বিরুদ্ধে জন সচেতনতা বাড়ানোর জন্য ‘এমটিভি প্রবিশন অ্যালোন টুগেদার’ এ অভিনয় করবেন সানিয়া৷ নভেম্বরের শেষ সপ্তাহেই ওয়েব সিরিজটি সোশ্যাল মিডিয়ায় দেখা যাবে।সানিয়া বলছিলেন, ‘আমাদের দেশে বহুদিনের পুরনো একটা ব্যাধির নাম যক্ষ্মা।

অর্ধেকের বেশি রোগীর বয়স ৩০ বছরের নিচে। তাই এই রোগ নিয়ে ধারণা পাল্টানোর চেষ্টা করতে হবে।’তিনি আরও বলেন, ‘এই রোগের ঝুঁকি সব সময় থেকে যায়। করোনার ফলে ঝুঁকি আরো বেড়েছে। যক্ষ্মা আটকানো এখন আরো কঠিন হয়ে উঠেছে। এর জন্যই এটা করছি। আশা করছি আমার উপস্থিতি যক্ষ্মার বিরুদ্ধে সম্মিলিত লড়াইয়ে সাহায্য করবে।

আনবে ইতিবাচক পরিবর্তনও।’৫ এপিসোডের এই ওয়েব সিরিজে দেখা যাবে সদ্য বিবাহিত এক দম্পতি লকডাউনের সময় কেমন ধরনের সমস্যার মধ্যে পড়ছেন। সানিয়া এই ওয়েব সিরিজে কথা বলবেন এই চ্যালেঞ্জগুলো নিয়েই।সানিয়া ছাড়াও অক্ষয় নলওয়াডে ও অশ্বিন মুশরান এই শোয়ে অভিনয় করবেন৷ ওয়েব সিরিজটি দেখানো হবে এমটিভি ইন্ডিয়া ও এমটিভি প্রহিবিশনে।