অভিনেতা দিলদারের মেয়ের বিয়ের ভিডিও ভাইরাল

লচ্চিত্রের পর্দায় দুঃখ ভুলানো মানুষ ছিলেন তিনি। ছবি দেখতে দেখতে কষ্ট-বেদনা বা ক্লান্তিতে মন যখন আচ্ছন্ন হয়ে যেতো তখনই তিনি হাজির হতেন হাসির ফোয়ারা ছড়িয়ে, পেটে খিল ধরিয়ে। বলছি, বাংলা চলচ্চিত্রের কিংবদন্তী কৌতুক অভিনেতা দিলদারের কথা।মৃত্যুর পর এই অভিনেতাকে আজও মিস করেন বাংলা ছবির দর্শক। ২০০৩ সালের ১৩ জুলাই তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

এরপর দিলদার অভিনীত ছবিগুলো সিনেমা হলে কিংবা টেলিভিশনের পর্দায় যখনই প্রচার হয় দর্শকরা তাকে নিয়ে আফসোস করেন। দিলদার গেলেন, তার মতো কেউ আর আসেনি।তিনি নায়ক হিসেবেও অভিনয় করে সফল হয়েছেন। কোটি দর্শকের মতো প্রিয় ছিলেন সিনেমার মানুষদের কাছে। প্রযোজক, পরিচালক ও তারকারা পছন্দ করতেন তাকে। সেই প্রমাণ মিললো সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিওতে।

সেই ভিডিওটি দিলদারের মেয়ে মাসুমার বিয়ের।জানা গেছে, ১৯৯৫ সালে দিলদারের বড় মেয়ে মাসুমা আক্তারের বিয়ে হয়। বিয়ের অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন ঢালিউড আলো করে রাখা একঝাঁক তারকা। তাদের মধ্যে আলমগীর, শাবানা, ইলিয়াস কাঞ্চন, শাবনূর, শাবনাজ, ওমর সানি, ডলি জহুর, হুমায়ুন ফরিদী, সাদেক বাচ্চু, মিজু আহমেদ, নূতনসহ অনেকেই ছিলেন।

বিয়ের অনুষ্ঠানের ভিডিওটিতে দেখা যায় দিলদারের সঙ্গে খুনসুটিতে মেতে ওঠেছিলেন তারকারা। যেখানে ডলি জহুর দিলদারকে মজা করে বলছেন, ‘এ মেয়েকে দেখে তো তোমার মেয়ে মনে হচ্ছে না।’ দিলদার জবাব দেন, ‘তাহলে কি বলবো?’ ডলি বলেন, ‘আমাদের মেয়ে বলো।’এদিকে দিলদারের ছোট মেয়ে জিনিয়া আফরোজ ভিডিওটি নিয়ে বলেন, ‘মগবাজারের একটি কমিউনিটি সেন্টারে আপুর বিয়ের অনুষ্ঠান হয়েছিল।

খুব মজা হয়েছিলো মনে আছে। সিনেমার অনেক তারকা এসেছিলেন। তাদের দেখতে মানুষের ভিড় লেগে গিয়েছিলো। সবাই একদম পরিবারের সদস্যদের মতো এলেন। আপুকে আশির্বাদ করলেন। সাধারণ অতিথিদের মতো খাবার খেলেন।শাবানা ম্যাডাম জর্দা খেয়ে খুব প্রশংসা করলেন। সেদিন টের পেয়েছিলাম আমরা সিনেমার মানুষ বাবাকে কতোটা ভালোবাসতেন। আজ এই ভিডিওটা মন খারাপ করিয়ে দিলো। আবার অনেক স্মৃতিও মনে করিয়ে আনন্দ দিচ্ছে।’