সাংবাদিক রোজিনার গলা চে’পে ধ’রার ভিডিও ভাইরাল!

দৈনিক প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামকে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে আ’ট’কে রেখে নি’র্যাত’নের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। সোমবার (১৭ মে) রাত সাড়ে ৮টার পর থেকে ভিডিওটি ফেসবুক ব্যবহারকারীদের শেয়ার করতে দেখা গেছে। ৫ মিনিট ৬ সেকেন্ডের ওই ভিডিওটি নিজ নিজ আইডি’তে শেয়ার করে ক্ষো’ভ প্রকাশ করেছেন সাংবাদিক ও লেখকসহ সমাজের ভিন্ন শ্রেণির পেশার মানুষ।

ভিডিওতে দেখা যায়, একটি রুম মধ্যে সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের গ’লা’চে’পে ধরে রাখেন স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব কাজী জেবুন্নেছা বেগম। এরপর মে’ঝেতে লু’টি’য়ে প’ড়ে যান রোজিনা ইসলাম। পরে জোর জ’ব’রদস্তি করে পুলিশের দুই নারী সদস্য তাকে অসু’স্থ অবস্থায় নিয়ে যায়। কোথায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছে, জানতে চাইলে পুলিশের এক কর্মকর্তা জানান, হাসপাতালে নিয়ে যাচ্ছি চিকিৎসার জন্য।

এ সময় পুলিশ কথা গ’ড়মি’ল পাওয়ায় সেখানে উপস্থিত গণমাধ্যম কর্মীরা ক্ষি’প্ত হয়ে যান। কিন্তু গণ’মাধ্যমক’র্মীদের কথা না শুনেই একটি মাইক্রোবাসে করে রোজিনা ইসলামকে নিয়ে যাওয়া হয়। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, অসুস্থ সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে হা’সপাতাল না নিয়ে শা’হবাগ থা’না নিয়ে যায় পু’লিশ। বিষয়টি জেনে তাৎক্ষণিক সেখানে ছুটে যান তার সহকর্মীরা। পরে প্র’তিবাদ বি’ক্ষো’ভ করেন তারা।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত, তথ্য চু’রি অ’ভিযোগে তার বিরুদ্ধে মা’ম’লা দায়ের করা হয়েছে। এর আগে অনুমতি ছাড়া করো’নাভাই’রাসের ভ্যা’কসিনের সরকারি নথির ছবি তো’লার অ’ভিযোগে দৈনিক প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামকে পাঁচ ঘণ্টা আ’টকে রাখার পর শা’হবাগ থা’না পুলি’শে সোপর্দ করেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

এদিন দুপুরে স্বাস্থ্য সচিব লোকমান হোসেন মিয়ার একান্ত সচিব সাইফুল ইসলাম ভূঁইয়ার অনুপস্থিতিতে অফিস কক্ষে ঢুকলে সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের বিরু’দ্ধে অনুম’তি ছাড়া করো’নাভাই’রাসের ভ্যাক’সিনের সরকারি নথির ছবি তোলার অ’ভিযোগ ওঠে। সেখা’নেই টানা পাঁচ ঘণ্টা আ’টকে রাখা হয় তাকে। এ বিষয়ে স’চিবালয়ে উপ’স্থিত সাংবাদিকেরা স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিবের বক্তব্য জানার চেষ্টা করেন। কিন্তু সচিবের বক্তব্য জানা সম্ভব হয়নি।

পরে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য কর্মকর্তা মাইদুল ইসলাম প্রধান সাংবাদিকদের বলেন, রোজিনা ইসলামের বিরুদ্ধে কিছু নথির ছবি তোলার অভিযোগ এনে থা’নায় অ’ভিযোগ করা হয়েছে।এ বিষয়ে পরিবারের সদস্যরা জানান, সোমবার দুপুরে এক সোর্সের কাছ থেকে কিছু কাগজ সংগ্রহ করতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে যান দৈনিক প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক রোজিনা ইসলাম। এসময় স্বাস্থ্য সচিব তার কক্ষে না থাকায় প্রথমে ঢুকতে না চাইলেও মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের অনুরোধে রুমে প্রবেশ করেন তিনি।

পরিবারের সদস্যরা আরও জানান, রুমে প্রবেশ করে একটি পত্রিকা পড়তে শুরু করলে হঠাৎ করেই মন্ত্রণালয়ের সাত আ’টজন কর্মী রোজিনা ইসলামের ব্যাগ ছিনিয়ে নিয়ে কিছু কাগজপত্র ব্যাগে ঢুকিয়ে তার বি’রু’দ্ধে নথি চু’রির অভিযোগ এনে হে’ন’স্তা শুরু করে।

এরপর দীর্ঘ প্রায় ছয় ঘণ্টা একটি কক্ষে আ’ট’কে রাখার পর রাত সাড়ে আ’টটার দিকে শাহবাগ থা’না পু’লিশের একটি টি’মের হাতে রোজিনা ইসলামকে হস্তান্তর করে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। বিভিন্ন সময়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন অ’নিয়ম ও দুর্নী’তি নিয়ে প্রতি’বেদন প্রকাশ করায় পরি’কল্পিতভাবে রোজিনা ইসলামকে ফাঁ’দে ফেলা হয়েছে বলেও অভিযোগ পরিবারের সদস্যদের।বর্তমানে সাংবাদিক রোজিনা উচ্চ র’ক্তচা’প ও হা’র্টের সমস্যায় ভুগছেন। শরীরে জ্ব’রও রয়েছে তার।ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *